শিরোনাম
ত্রিশা‌লে নির্মণ কা‌জের উ‌দ্বোধন অব‌শে‌ষে মিনহা‌জের সহ‌যোগীতায় ম‌মে‌কে অজ্ঞাত বৃদ্ধা ফুলবাড়িয়া মাহফিজুর রহমান বাবুলের তৃতীয় সন্তান নিলয় আর নেই। আর এম বি সি কল্যাণ সমিতি, এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা,র সাধারন সম্পাদক ও আওয়ামীলীগ নেতা সদ্য প্রয়াত সাইদুল ইসলাম খান পল স্বরণে আলোচনা, মিলাদ ও দোয়া ফুলবাড়িয়ায় জাতীয় পার্টি, র মহাসচিব এর রোগমুক্তি কামনায় মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত ফুলবাড়িয়ায় আ’লীগ শীর্ষ নেতাদেরকে অসম্মান করে মন্তব্য করেছেন বিএনপির চেয়ারম্যান ময়মন‌সিংহ বিভাগ সমিতি ঢাকা,র করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরন প্রতিবন্ধী দুই ছেলেকে বাঁচাতে মা-বাবার আকুতি ত্রিশালে বলাৎকারের অভিযোগে বড় হুজুর আটক আরেক দফা বাড়াছে বিধিনিষিধ, চুরান্ত কাল

সংগীতশিল্পী এন্ড্ররু কিশোরের অবস্থা সংকটাপন্ন

  • আপডেট সোমবার, ৬ জুলাই, ২০২০
  • ১৪৯ দেখেছে
সংগীতশিল্পী এন্ড্ররু কিশোর

দেশবরেণ্য সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোরের অবস্থা সংকটাপন্ন। দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছে তাঁর পরিবার। বর্তমানে তিনি তাঁর গ্রামের বাড়ি রাজশাহীতে আছেন।

দীর্ঘ নয় মাস পর গত ১১ জুন সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফেরেন তিনি। তবে করোনার কারণে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা পাচ্ছেন না বলে এর আগে এনটিভি অনলাইনকে জানান এন্ড্রু কিশোরের পরিবারের ঘনিষ্ঠজন।

নাম প্রকাশ না করে এন্ড্রু কিশোরের ওই ঘনিষ্ঠজন মুঠোফোনে আজ সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘দাদার অবস্থা খুব ভালো নয়। মাঝেমধ্যে শরীর খারাপ হয়ে যাচ্ছে। পরিবারের সবাই অনেক চিন্তিত। সর্বক্ষণ ডাক্তার দেখাশোনা করছেন। উনার পরিবারের পক্ষ থেকে সবার কাছে দোয়া চাওয়া হয়েছে। সবাই দাদার জন্য দোয়া করবেন, সৃষ্টিকর্তা যেন আবারও দাদাকে আমাদের মাঝে সুস্থ শরীরে ফিরিয়ে দেন।’

মৃত্যুর গুজব নিয়ে ওই ঘনিষ্ঠজন আরো বলেন, ‘যাঁর পরিবারের সদস্য বিছানায় অসুস্থ হয়ে পড়ে থাকেন, তাঁর জন্য এমন গুজব যে কত বড় বোঝা সেটা অন্য কেউ বুঝবে না। সবাইকে অনুরোধ করব, গুজব রটনা বন্ধ করুন। দাদা শুধু আমাদের পরিবারের সদস্যই নন, দেশেরও অংশ। তাঁর ভালো-মন্দ আমরা পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে জানাব।’

গেল বছরের সেপ্টেম্বর থেকে ক্যানসারে (নন-হজকিন লিম্ফোমা) আক্রান্ত হয়ে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন দেশের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর।

উন্নত চিকিৎসার জন্য গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে দেশ ছাড়েন এন্ড্রু কিশোর। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ১৮ সেপ্টেম্বর তাঁর শরীরে ক্যানসার ধরা পড়ে। এরপর থেকে থেমে থেমে তাঁকে কেমোথেরাপি দেওয়া হচ্ছিল। সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক লিম সুন থাইয়ের অধীনে তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়। এন্ড্রু কিশোরের চিকিৎসায় পূর্ণ সহায়তা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলা গানের কিংবদন্তি এই সংগীতশিল্পী ‘প্লেব্যাক সম্রাট’ নামে পরিচিত। বাংলা চলচ্চিত্রের গানে তাঁকে বলা যেতে পারে এক মহাসমুদ্র। কয়েক দশক ধরে সেই সমুদ্রে সাঁতার কেটে চলেছেন শ্রোতারা। ‘জীবনের গল্প আছে বাকি অল্প’, ‘হায়রে মানুষ রঙিন ফানুস’, ‘ডাক দিয়াছেন দয়াল আমারে’, ‘আমার সারা দেহ খেয়ো গো মাটি’, ‘আমার বুকের মধ্যখানে’, ‘পৃথিবীর যত সুখ আমি তোমারই ছোঁয়াতে খুঁজে পেয়েছি’, ‘সবাই তো ভালোবাসা চায়’, ‘বেদের মেয়ে জোছনা আমায় কথা দিয়েছে’, ‘তুমি আমার জীবন আমি তোমার জীবন’, ‘ভালো আছি ভালো থেকো’, ‘তুমি মোর জীবনের ভাবনা’, ‘চোখ যে মনের কথা বলে’সহ অসংখ্য শ্রোতাপ্রিয় গান রয়েছে তাঁর।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংক্রান্ত আরও খবর

ফেইসবুক পেজ

error: Content is protected !!