শিরোনাম
কেতকীবাড়ি চান্দখানার রাস্তার বেহাল দশা দেখার কেউ নেই ছাত্র আন্দোলন আমিরাবাড়ী ইউনিয়নের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা ফুলবাড়িয়ায় জাতীয় পার্টির নেতার স্বরণ সভা ও দোয়া মাহফিল ভূঞাপুরে অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের দায়ে ৩জনকে কারাদণ্ড এবার নেত্রকোনায় ৩ নবজাতকের নাম রাখা হলো স্বপ্ন ,পদ্মা ও সেতু: নির্মাণ শেষ হওয়ার আগেই দেবে গেলো সাড়ে তিন কোটি টাকার সেতু সুনামগঞ্জে ১৫ দিনের ব্যবধানে দ্বিতীয় দফায় ভয়াবহ বন্যা, বিপাকে লক্ষ লক্ষ মানুষ নেত্রকোনায় বৃষ্টিপাত অব্যাহত, বেড়ে চলেছে নদ-নদীর পানি টাঙ্গাইলে ১৮ ইউপি নির্বাচনে আ.লীগ ১১, বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র ৭ টাঙ্গাইলে কিলোমিটার পোস্টে ‘বঙ্গবন্ধু’ বানান ভুল

প্রেমঘটিত দ্বন্দ্বের যুবক নিহত

  • আপডেট সোমবার, ১৫ জুন, ২০২০
  • ১৪৫ দেখেছে
মারামারি থামাতে গিয়ে যুবক নিহত, ৭টি মোটরসাইকেলে আগুন

প্রেমঘটিত দ্বন্দ্বের জের ধরে হামলার ঘটনায় ঢাকার দোহারে রাসেল শেখ (৩৫) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় উত্তেজিত এলাকাবাসী হামলাকারীদের অন্তত সাতটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। এছাড়াও আরও কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করা হয়।

সোমবার (১৫ জুন) বেলা সাড়ে দশটার দিকে উপজেলার মইতপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ও র‌্যাব ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

ঘটনাস্থল থেকে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুম আহমেদ ভুঁইয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

জানা যায়, উপজেলার মইতপাড়া খালপাড় গ্রামের মোবারক খলিফার ছেলে মনির হোসেন ও একই এলাকার সাদেক ভুঁইয়ার ছেলে মো. সোহান। একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমঘটিত বিষয় নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে মনির ও সোহানের মধ্যে দ্বন্দ্ব চরমে উঠেছিল। ওই দ্বন্দ্বের রেশ ধরে আজ সোমবার (১৫ জুন) বেলা সাড়ে দশটার দিকে সোহানের নেতৃতে ১৫/২০টি মোটরসাইকেল নিয়ে বিল্লাল, শাকিল, ছোট শাকিল, ফাহিম, রাজন, ইমন, মিলন, আল-আমিন, সাদেকসহ তাদের বন্ধুরা মিলে মনিরের বাড়িতে গিয়ে তার উপর হামলা চালায়।

এ পরিস্থিতি দেখে প্রতিবেশী রাসেল শেখ নামে ইতালি ফেরত এক যুবক মারামারি থামাতে আসেন। এ সময় মাথায় আঘাত পেয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন রাসেল। গুরুত্বর আহত অবস্থায় তাকে দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত রাসেল মইতপাড়া গ্রামের আব্দুল রশিদ শেখের ছেলে।

এদিকে রাসেলের মৃত্যুর খবর মুঠোফোনে এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত এলাকাবাসী সোহানের পক্ষে আসা লোকজনের উপর চড়াও হলে তারা তাদের মোটরসাইকেল রেখেই দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে উত্তেজিত জনতা মোটরসাইকেল ভাংচুর করে ৭/৮টি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। মোটরসাইকেলের আগুন নেভাতে ঘটনাস্থলে আসেন দোহার ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। এর পরপরই র‌্যাব-১১ সদস্যরা ঘটনাস্থলে আসেন। দোহার সার্কেলের এএসপি জহিরুল ইসলাম ও দোহার থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেনকে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুম আহমেদ ভুঁইয়া।

এলাকাবাসী বলেন, এ ঘটনায় মারা যাওয়া রাসেল শেখ একজন নির্দোষ ব্যক্তি। মারামারি ঠেকাতে আসলে তাকে আঘাত করা হয়েছে। সে সম্প্রতি ইতালি থেকে দেশে এসেছেন। আমরা নির্দোষ একজন ব্যক্তিকে হত্যার বিচার চাই।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুম আহমেদ ভুঁইয়া বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ছোট শাকিল ও রাজন নামে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। ঘটনাটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পেরেছি প্রেমঘটিত বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে এ ঘটনা ঘটেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংক্রান্ত আরও খবর

ফেইসবুক পেজ

error: Content is protected !!