শিরোনাম
ত্রিশালে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিখিলের মৃত্যু ত্রিশা‌লে নির্মণ কা‌জের উ‌দ্বোধন অব‌শে‌ষে মিনহা‌জের সহ‌যোগীতায় ম‌মে‌কে অজ্ঞাত বৃদ্ধা ফুলবাড়িয়া মাহফিজুর রহমান বাবুলের তৃতীয় সন্তান নিলয় আর নেই। আর এম বি সি কল্যাণ সমিতি, এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা,র সাধারন সম্পাদক ও আওয়ামীলীগ নেতা সদ্য প্রয়াত সাইদুল ইসলাম খান পল স্বরণে আলোচনা, মিলাদ ও দোয়া ফুলবাড়িয়ায় জাতীয় পার্টি, র মহাসচিব এর রোগমুক্তি কামনায় মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত ফুলবাড়িয়ায় আ’লীগ শীর্ষ নেতাদেরকে অসম্মান করে মন্তব্য করেছেন বিএনপির চেয়ারম্যান ময়মন‌সিংহ বিভাগ সমিতি ঢাকা,র করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরন প্রতিবন্ধী দুই ছেলেকে বাঁচাতে মা-বাবার আকুতি ত্রিশালে বলাৎকারের অভিযোগে বড় হুজুর আটক

ভাল কাজ করলে সমালোচনা হবেই -মেয়র আনিছ

  • আপডেট বুধবার, ২১ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৪২ দেখেছে

ময়মনসিংহের ত্রিশাল পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব এবিএম আনিছুজ্জামান আনিছ বলেছেন, ত্রিশালবাসী সকলেই আমাকে ভালবাসেন। আমার কোন শত্রু নেই। তাই আমি সবসময় একা চলি। আমার কোনো বাহিনী নেই, সন্ত্রাসী বা বিশেষ বাহিনী নেই। বিশেষ পাহারা নেই। সাধারণ মানুষের সাথে আমি কখনও মোটর সাইকেল আবার কখনও রিক্সাতেও চলি –ত্রিশালবাসীর সবাই তা জানেন ও দেখেন। এক সাক্ষতকারে তিনি বলেন।

আপনার বিরুদ্ধে সমালোনা করেন এমনই মানুষ আছেন এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র আনিছুজ্জামান আনিছ বলেন, কেউ হয়তো আছেন, তারা আমার নিকট থেকে ব্যক্তিগত সুবিধা পাননি। তাই প্রতিহিংসা করছেন। তাদের উদ্দেশ্যে বলবো, নোংরামির রাজনীতি ছেড়ে আসুন ত্রিশালবাসীর কাছে স্বচ্ছ, জবাবদিহিতামূলক নেতৃত্বের চর্চা করুন। মেয়র আনিছ বলেন, আমার কোন প্রতিপক্ষ বা শত্রু আছে বলে মনে করি না। আমি জানি, ভাল কাজ করলে সমালোচনা হবেই। তবে, আমার মাদকের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান রয়েছে।

ত্রিশালের সচেতন মহল বলেন, বিগত কয়েক দশক ধরে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও বর্তমানে আওয়ামীলীগ করছেন মেয়র আনিছুজ্জামান আনিছ। এই দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে ইমেজ সংকটের কোনো ঘটনা ঘটেনি তার। তিনি স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতামূলক রাজনীতিতে বিশ্বাসী।

ত্রিশালের আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা- কর্মীরা জানান, মানুষের যে ভালোবাসা আনিছুজ্জামান আনিছের জন্য আছে, তা কখনও ফুরিয়ে যাবে না। ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী নাসিরাবাজ কলেজ থেকে বিএসসি পাশ করার আগে থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে অঙ্গাঅঙ্গিভাবে জড়িত আনিছুজ্জামান আনিছ। ত্রিশাল উপজেলা ছাত্রলীগের ১নং যুগ্ম আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেন তিনি । তৎপরবর্তীতে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ত্রিশাল উপজেলা যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ২০১১ সালে ত্রিশালের মানুষ তাকেই বেছে নিয়েছেন পৌরসভার মেয়র হিসেবে।

ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও কর্মীরা জানান, ছাত্রলীগ থেকে উঠে আসা আনিছুজ্জামান আনিছ এই পুরো যাত্রাপথে মানুষের সঙ্গেই আছেন। ঘাত প্রতিঘাত পাড় হলেও মানুষের কাছ থেকে কখনো দূরে সরেননি তিনি। ত্রিশাল আওয়ামীলীগের তিনি তৃণমূলের নেতা। তৃণমুলের নেতাকর্মীদের নিয়েই তার রাজনীতি। ত্রিশাল পৌরসভার মেয়র হয়েও তিনি গোটা ত্রিশাল উপজেলার সব শ্রেণির মানুষের সাথে মিশেন, সেভাবেই তিনি ধীরে ধীরে গণমানুষের নেতা হয়ে উঠেছেন। বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হিসাবেও প্রতিষ্ঠিত মেয়র আনিছ। দেশের সুনামধন্য আকিজ সিমেন্ট ও আকিজ সিরামিক্স এর ময়মনসিংহ বিভাগের ডিলার তিনি। মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত তিনি একজন সফল ঠিকাদার হিসাবেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন। শিক্ষক, মুক্তিযোদ্ধা, প্রতিবন্ধী শ্রেণির মানুষকে তিনি সর্বাধিক গুরুত্ব দেন। তাদের আর্থিক সমস্যা সামাধানসহ যেকোন কঠিন সংকটে তাদের পাশে দাঁড়ান। যদিও মেয়র আনিছ ত্রিশাল এলাকার মানুষের সুখ-দূঃখে পাশে দাঁড়াতে শুরু করেছিলেন কৈশোরেই। যা এখানও অব্যাহত আছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংক্রান্ত আরও খবর

ফেইসবুক পেজ

error: Content is protected !!