শিরোনাম
কেতকীবাড়ি চান্দখানার রাস্তার বেহাল দশা দেখার কেউ নেই ছাত্র আন্দোলন আমিরাবাড়ী ইউনিয়নের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা ফুলবাড়িয়ায় জাতীয় পার্টির নেতার স্বরণ সভা ও দোয়া মাহফিল ভূঞাপুরে অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের দায়ে ৩জনকে কারাদণ্ড এবার নেত্রকোনায় ৩ নবজাতকের নাম রাখা হলো স্বপ্ন ,পদ্মা ও সেতু: নির্মাণ শেষ হওয়ার আগেই দেবে গেলো সাড়ে তিন কোটি টাকার সেতু সুনামগঞ্জে ১৫ দিনের ব্যবধানে দ্বিতীয় দফায় ভয়াবহ বন্যা, বিপাকে লক্ষ লক্ষ মানুষ নেত্রকোনায় বৃষ্টিপাত অব্যাহত, বেড়ে চলেছে নদ-নদীর পানি টাঙ্গাইলে ১৮ ইউপি নির্বাচনে আ.লীগ ১১, বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র ৭ টাঙ্গাইলে কিলোমিটার পোস্টে ‘বঙ্গবন্ধু’ বানান ভুল

ধর্মপাশায় ভাইস চেয়ারম্যান ইয়াসমিন আক্তারের জনপ্রিয়তায় কুৎসা অপপ্রচারে নেমেছে একটি মহল

  • আপডেট শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৯৫ দেখেছে

সুনামগঞ্জ জেলার ধর্মপাশা ও মধ্যনগর থানা ধর্মপাশায় উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ইয়াসমিন আক্তারের ব্যাপক জনপ্রিয়তা ও গ্রহণযোগ্যতা দেখে একটি কুচক্রিমহল তার বিরুদ্ধে কুৎসা ও অপপ্রচার চালাচ্ছে ।ইয়াসমিন আক্তারের একজন দুরসম্পর্কের আত্বীয় ললিতা বেগম নামের এক নারীকে গৃহকর্মী হিসাবে অপপ্রচার করে সাজানো মনগড়া গল্প মঞ্চস্থ করে সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করে যাচ্ছে । একটি স্বার্থন্বেষী মহল ইয়াসমিন আক্তারের সামাজিক ও গণমানুষের সকল কর্মকান্ডে অংশগ্রহনকে হিংসা ও ঈর্ষার দৃষ্টিতে দেখে বিভ্রান্ত ও ষড়যন্ত্র করছে । জানা যায়, ইয়াসমিন আক্তার ধর্মপাশা ও মধ্যনগর থানাবাসীর বিপুল ভোটে নির্বাচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান । আগামীতে তাকে মহিলা সংরক্ষিত আসনে এমপি হিসাবে দেখতে চাইছেন এই দুই থানার ভোটাররা । আর ভোটারদের চাওয়াটাই একটি কুচক্রি মহলের হিংসার কারণ । ষড়যন্ত্রেও অংশ হিসাবে ললিতার সাজানো ঘটনার ঈর্ষার চরম বহিঃপ্রকাশ।

ইয়াসমিন আক্তারের অনুসারী ও সমর্থকরা জানান, ইয়াসমিন আক্তার নিজগুণে জনপ্রিয়তা, যশ ও সুখ্যাতি অর্জন করেছেন। প্রশংসা ও জনপ্রিয়তা দেখে তার বিরুদ্ধে এহেন কুৎসা নজিরবিহীন । সাজানো এই ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। জানা গেছে, সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের শিক্ষিত, ভদ্র, মার্জিত, পরোপকারি ও সদাহাস্যোজ্বল ধর্মপাশার নারী- পুরুষ সকলের প্রিয় ইয়াসমিন আক্তার। ধর্মপাশা উপজেলার ধর্মপাশা ও মধ্যনগর থানাবাসী সামাজিক বৈষম্য ও শিক্ষা এবং উন্নয়নের লড়াইয়ে নিরলস কাজ করে চলেছেন আদর্শ ভাইস চেয়ারম্যান ইয়াসমিন আক্তার । তিনি একজন আদর্শের প্রতীক । অনুকরনীয়, অনুসরনীয়, মহানুভব ও পরোপকারী ইয়াসমিন আক্তার বাল্যকাল থেকেই মানুষের উপকারে অবদান রেখে চলেছেন দুস্থ, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। জনপ্রতিনিধি হিসাবে মানুষের সেবা করে চলেছেন ।

ইয়াসমিন আক্তার বলেন, নারী হলেও আমি আপনাদের মত আমিও মানুষ। সমাজের দুস্থ ও অসহায় মানুষের সেবা করার জন্য আমি নির্বাচন করেছি। ধর্মপাশা ও মধ্যনগরবাসী আমাকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করায় এজন্য আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। মানুষের অধিকার আদায়, সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের উন্নয়নে কাজ করছি । যতদিন বেঁচে থাকব মানুষের সুখে দু:খে পাশে থাকব ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংক্রান্ত আরও খবর

ফেইসবুক পেজ

error: Content is protected !!