উলিপুর পৌরসভায় দরপত্রে মুল্য কারচুপির অভিযোগ, ঠিকাদাররা ক্ষুব্ধ

মোঃ মশিউর রহমান বিপুল, কুড়িগ্রাম থে‌কে 
  • আপডেট মঙ্গলবার, ২৯ মার্চ, ২০২২
  • ৮১ দেখেছে

কুড়িগ্রামের উলিপুর পৌরসভায় প্রায় দু’ কোটি টাকা মুল্যের দরপত্রে মুল্য কারচুপির মতো গুরুত্বর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই অনিয়মের বিষয়টি ফাঁস হয়ে পড়ায় দরপত্রে অংশগ্রহনকারী ঠিকাদারদের মাঝে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্ট হয়েছে।

প্রাপ্ত অভিযোগে জানা যায়- বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্ট ফান্ডের (বিসিসিটিএফ) অর্থায়নে উলিপুর পৌরসভার রাস্তা সমুহে সোলার স্ট্রিট লাইট স্থাপনের জন্য চলতি বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারী ই-জিপি এর মাধ্যমে উন্মুক্ত দরপত্র আহবান করা হয়। উলিপুর পৌরসভা কর্তৃক আহবানকৃত দরপত্রে বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্ট ফান্ড(বিসিসিটিএফ) কর্তৃক অনুমোদিত প্যাকেজের একক দর ছিল- ১ লাখ ৩৩ হাজার ২ টাকা। যার সর্বমোট মুল্য দাড়ায় ১ কোটি ৯৯ লাখ ৮০ হাজার টাকা। পরবর্তিতে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ গোপনে বিসিসিটিএফ কর্তৃক অনুমোদিত দর পরিবর্তন করে। পরিবর্তিত একক প্যাকেজের দর ধরা হয়- ১ লাখ ৩২ হাজার ৯শ’ ৫০ টাকা। যার মোট মুল্য দাড়ায় ১ কোটি ৯৯ লাখ ৪২ হাজার ৫শ’ টাকা।
অভিযোগে আরো জানা যায়- উলিপুর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ গোপনে অনুমোদনহীন পরিবর্তিত দর মনোনিত ‘পাওয়ার প্লাস সোলার’ নামের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে জানিয়ে দেয়। দরপত্রে অংশগ্রহনকারী অপর চার ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান পরিবর্তিত দর জানতে না পেরে তারা দর মেলাতে পারেনি। দরপত্রের বাক্স খোলার পর মুল্য কারচুপির বিষয়টি ফাঁস হয়ে পড়লে অংশগ্রহনকারী এমএস পর্বাঞ্চল ট্রেড, রিসডা বাংলাদেশ, রুরাল সার্ভিস ফাউন্ডেশন এবং সানরজি টেকনোলজি নামের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ক্ষুব্ধ হয়। এই চার ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মধ্যে এমএস পর্বাঞ্চল ট্রেড এবং সানরজি টেকনোলজি সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ করে দরপত্রে মুল্য কারচুপির ঘটনায় প্রতিকারের দাবী জানায়।
এ ব্যাপারে উলিপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী প্রকৌশলী নুরুজ্জামানের সাথে কথা হলে তিনি জানান- মুল্য পরিবর্তনের বিষয়টি সম্পর্কে মেয়র স্যার ভালো বলতে পারবেন।
উলিপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ মামুন সরকার মিঠুর সাথে কথা বললে তিনি জানান- যথাযথ প্রক্রিয়া মেনেই দরপত্রের মুল্য পরিবর্তন করা হয়েছে।

একই প্রসঙ্গে বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাস্ট ফান্ড (বিসিসিটিএফ) এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব মোঃ রেজাউল হক এবং এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের পৌর শাখা-১ এর উপ সচিব ফারুক হোসাইনের সাথে কথা হলে তারা জানান- সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে দরপত্রের মুল্য কারচুপির বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে আমরা যথাপোযুক্ত ব্যবস্থা নিবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সংক্রান্ত আরও খবর

ফেইসবুক পেজ

error: Content is protected !!